৩৯তম বিশেষ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি আসছে

৩৯তম বিশেষ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি আজ রোববার প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক। আজ পিএসসির প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। সূত্রঃ – প্রথম আলো
এটি হবে চিকিৎসকদের জন্য বিশেষ বিসিএস।
পিএসসি মিলনায়তনে সভাপতির বক্তব্যে সাদিক আরও বলেন, পিএসসি আলোকিত কর্মী বাহিনী তৈরির কাজ করছে। সেই কর্মী বাহিনী বাংলাদেশকে বদলে দিচ্ছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, পিএসসি বঙ্গবন্ধুর হাতে তৈরি একটি প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠান গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় দায়িত্ব পালন করে আসছে।

পিএসসির সদস্য আনোয়ারা বেগম বলেন, পিএসসির সিলেবাসে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হওয়া উচিত। তাহলে আগামী তরুণ প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সম্পর্কে জানতে পারবে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ৩৯তম বিসিএসে ৪ হাজার ৫৪২ জন সহকারী সার্জন আর ২৫০ জন সহকারী ডেন্টাল সার্জন নেওয়া হবে। সব মিলে প্রায় পাঁচ হাজার চিকিৎসক নেওয়া হবে এই বিসিএসে। এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

৩৯তম বিশেষ বিসিএসে এমসিকিউ ধরনের লিখিত পরীক্ষা হবে। এতে ২০০ নম্বরের প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। এ ছাড়া ১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা হবে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, মেডিকেল সায়েন্স বা ডেন্টাল সায়েন্স বিষয়ে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। এ ছাড়া বাংলা, ইংরেজি, বাংলাদেশ বিষয়াবলি ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিতে ২০ নম্বর করে এবং মানসিক দক্ষতা ও গাণিতিক যুক্তিতে ১০ নম্বর করে মোট ২০০ নম্বরের দুই ঘণ্টার এমসিকিউ ধরনের লিখিত পরীক্ষা হবে। প্রতি এমসিকিউ প্রশ্নের সঠিক উত্তরের জন্য এক নম্বর দেওয়া হবে। তবে প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা হবে শূন্য দশমিক ৫০ নম্বর। লিখিত পরীক্ষায় পাস নম্বর পিএসসি নির্ধারণ করবে। মৌখিক পরীক্ষার পাস নম্বর ধরা হয়েছে ৫০। লিখিত পরীক্ষা শুধু ঢাকায় হবে।

বিশেষ নোটঃ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ৩৯তম বিসিএসে ৪ হাজার ৫৪২ জন সহকারী সার্জন আর ২৫০ জন সহকারী ডেন্টাল সার্জন নেওয়া হবে। সব মিলে প্রায় পাঁচ হাজার চিকিৎসক নেওয়া হবে এই বিসিএসে। এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এটি হবে চিকিৎসকদের জন্য বিশেষ বিসিএস।